বিস্তারিত

  • হোম
  • |
  • প্রতি কেজি শিয়ালের মাংস ২০০০ টাকায় বিক্রি, আটক করা হয়েছে ১ জন কে
thumb
প্রতি কেজি শিয়ালের মাংস ২০০০ টাকায় বিক্রি, আটক করা হয়েছে ১ জন কে
  • 12/12/2021 9:15:22 PM
  • মো: মোস্তাফিজার রহমান
  • 0 - Comments

আটক কৃত  বেলাল হোসেন নামের ওই ব্যাক্তি শিয়াল ধরতেন রাতে আর জবাই করে মাংস বিক্রি  করতেন  দিনের বেলায়।

 এক  খবরে জানা গেছে  যে,  শিয়াল ধরে জবাইয়ের পর দুই হাজার টাকায় বিক্রি করছিলেন প্রতি কেজি মাংস।  চট্টগ্রামের বন বিভাগের কর্মকর্তারা তাকে ধরতে ক্রেতা সেজে পরে কিছু মাংস সহ আটক করে বেলালকে।

 

গতকাল ১১ ডিসেম্বর রোজ শনিবার বিকেল নাগাদ বন একাডেমি সংলগ্ন হিল ভিউ আবাসিক নামক এলাকায় এই অভিযান চালান চট্টগ্রামের বন বিভাগের কর্মকর্তারা। বিভাগীয় বন ব্যবস্থাপনা বিভাগ, বন কর্মকর্তা ও প্রকৃতি সংরক্ষণ বিভাগ, সেইসাথে চট্টগ্রাম উত্তর বন বিভাগ এ অভিযান  যৌথভাবে পরিচালনা করে বেলাল হোসেন নামের ওই ব্যাক্তিকে আটক করেছে বলে জানা গেছে।

 

দীপান্বিতা ভট্টাচার্য নামের বন্য প্রাণী সংরক্ষণ বিভাগের জীববৈচিত্র্য সংরক্ষণ কর্মকর্তা বলেন যে, গত ১০ ডিসেম্বর রোজ শুক্রবার  রাতের বেলায়  বন একাডেমি সংলগ্ন এলাকার  বন থেকে কয়েক জন ব্যক্তি মিলে একটি  শিয়াল আটক করেছে  এবং ওই রাতেই তারা শিয়ালটিকে  বেলাল হোসেন নামের ওই ব্যাক্তির দোকানে জবাই করে, তারপর সকাল হলে উচ্চমূল্যে  শিয়ালটির মাংস বিক্রি শুরু করে তারা। সেসময় বেশ কিছু মাংস সহ বেলাল নামক ওই ব্যাক্তিকে  হাতেনাতে আটক করে বন বিভাগের ওই কর্মকর্তারা এবং আটকের পর ওই ব্যাক্তি কে বন বিভাগের কর্মকর্তারা কারাগারে পাঠান  আদালতের মাধ্যমে।

 

বন বিভাগ এর পক্ষ থেকে কর্মকর্তারা জানায় যে, ২০১২  এর বন  ও বন্য প্রাণী সংরক্ষণ ও নিরাপত্তা আইন অনুযায়ী আটককৃত ওই শিয়ালের মাংস বিক্রেতা  বেলাল হোসেনের নামে বন আদালতে মামলা হয়েছে। ওই এলাকার  ইসমাইল হোসেন নামে বন্য প্রাণী বিভাগের সদর রেঞ্জ  এর এক কর্মকর্তা বাদী হয়ে আটককৃত ওই ব্যাক্তির নামে মামলাটি  করেন।

 

 জানা গেছে যে, হিল ভিউ  নামের ওই  আবাসিক এলাকায় আটককৃত ওই বেলাল হোসেন এর একটি পোলট্রি দোকান আছে। শিয়ালের মাংস বিক্রেতা আটককৃত ওই বেলাল হোসেন প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে ঘটনার  স্বীকারোক্তি মূলক তার সাথে জড়িত  আরও পাঁচ ব্যাক্তির  নাম বলেছেন। যদিও ওই বাকি ৫ জনের নাম  এজাহারে উল্লেখ আছে কিন্তু তারা সকলেই এখন পলাতক রয়েছেন।

 

নাজমুল হাসান  নামের চট্টগ্রাম উত্তর বন বিভাগের সদর রেঞ্জ কর্মকর্তা জানিয়েছেন যে, ‘খবর পেয়ে গিয়ে দেখি, তাঁরা দুই হাজার টাকায় প্রতি কেজি শিয়ালের মাংস বিক্রি করছেন। এ সময় বেলালকে হাতেনাতে আটক করা হয়।’

 

রফিকুল ইসলাম নামের বন্য প্রাণী ও প্রকৃতি সংরক্ষণ চট্টগ্রাম অঞ্চলের বিভাগীয় বন কর্মকর্তা জানিয়েছেন যে , বন একাডেমি এলাকার  পাহাড় গুলোতে  অনেক শিয়াল এর বিচরণ রয়েছে। আটককৃত শিয়ালের মাংস বিক্রেতা বেলাল হোসেন সহ উল্লিখিত  অন্য ব্যাক্তিরা  সে সকল  শিয়াল ধরে ধরে স্থানীয় বাজারে অতি উচ্চ মূল্যে  বিক্রি করছিলেন দীঘদিন ধরে। ওই এলাকার  সাধারণ মানুষের ধারণা যে, শিয়ালের মাংস রান্না করে খেলে রোগ বালাই  ভালো হয়ে যায়।

আপনার মন্তব্যঃ

একই ধরনের সংবাদ

আপনার জন্য