বিস্তারিত

  • হোম
  • |
  • নতুন বছর উৎযাপন উপলক্ষে উড়ানো ফানুশের আগুনে পুড়লো রাজধানীর কমপক্ষে ১০ টি বাড়ি
thumb
নতুন বছর উৎযাপন উপলক্ষে উড়ানো ফানুশের আগুনে পুড়লো রাজধানীর কমপক্ষে ১০ টি বাড়ি
  • 1/1/2022 7:28:14 PM
  • মো: মোস্তাফিজার রহমান
  • 0 - Comments

ইংরেজি নববর্ষ ২০২২ বরণ উপলক্ষে কথিত থার্টি ফার্স্ট নাইটে বিশ্ব ব্যাপী উড়ানো হয় ফানুস এবং করা হয় হাজারো রঙের  আতশবাজি, তেমনি ঢাকায় ও ওড়ানো হয়েছে আগুন প্রজ্জলিত লাল কাপড়ের এই ফানুস আর এই ফানুশের আগুনই যেন কাল হলো ঢাকাবাসীর। নতুন বর্ষবরণের আনন্দকে কালো ধোঁয়ায় ঢেকে সেই ফানুশের আগুনে পুড়লো রাজধানীর অন্তত ১০টি স্থান।

 

গতকাল শুক্রবার দিবাগত রাতে বিশ্বব্যাপী  ২০২২ সালকে বরণের মহড়া চলে। রাত প্রায়  পৌনে এক টার দিকে সেই ফানুশের আগুন লেগে যায় রাজধানীর বিভিন্ন বাসায় ও স্থানে এমন ফোন পান  ফায়ার সার্ভিসের কন্ট্রোল রুমের কর্মকর্তা এরশাদ হোসেন। তিনি বিষয়টি সংবাদ মাধ্যমকে বিষয়টি  নিশ্চিত করেছেন।এছাড়াও সামাজিক যোগাযোগ মাদ্ধমে বিভিন্ন স্থানে ব্যাপক অগ্নিকাণ্ডের ভিডিও ছড়িয়ে পড়েছে। যা সামাজিক যোগযোগ মাদ্ধমে ভাইরাল ব্যাপার হয়ে দাঁড়িয়েছে।

সরাসরি দেখতে না পারলেও সারা দেশ ব্যাপী মানুষ সেই আগুন লাগার ভিডিও দেখেছে  সামাজিক যোগাযোগ মাদ্ধমে মারফত। 

 

ডিউটি রত ফায়ার সার্ভিসের কর্মকর্তা বিষয়টি সম্পর্কে জানিয়েছেন যে , রাজধানীর তেজগাঁও এলাকা, যাত্রাবাড়ী এলাকা, ধানমন্ডি এলাকা, রায়েরবাগ এলাকা সহ প্রায়  ১০টি স্থানে  বাসার ছাদ ও সড়কের ঝুলন্ত বৈদ্যুতিক তারে আগুন লেগেছে বলে তারা সংবাদ পেয়েছেন।  ফায়ার সার্ভিসের ২টি করে ইউনিট প্রতিটি স্থানে  পাঠানো হয়েছে বলে জানান তিনি।

 

ওই অগ্ণিকাণ্ডের ঘটনায় অনেকেই অগ্নি দগ্দ্ধ হয়েছেন বলে জানিয়েছেন কর্তব্যরত ফায়ার সার্ভিসের কর্মকর্তা, তিনি  আরও জানান যে দগ্ধ ব্যাক্তিদের  উদ্ধার করে সঙ্গে সঙ্গে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে  পাঠানো হয়েছে এবং সোখানে তাদের চিকিৎসা চলছে।

 

ফায়ার সার্ভিসের দায়িত্বরত  কর্মকর্তা  জানিয়েছেন যে , ফায়ার সার্ভিসের বিভিন্ন কন্ট্রোল রুমে গতকাল রাতে প্রায় ২০০ ফোন কল পেয়েছেন বিভিন্ন  স্থানে আগুন  লেগেছে এমন স্থান থেকে। তবে সঠিকভাবে বলা সম্ভব হয়নি যে আসলে কত জায়গায় আগুন লাগার ঘটনা ঘটেছে।

 

আরো পড়ুন,

 

ঢাকায় আজ থেকে শুরু হতে যাচ্ছে মাসব্যাপি আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলা।

 

নতুন বছরের আগমনের সাথে সাথে রাজধানীবাসী আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলার অপেক্ষায় থাকে। ঢাকার আগারগাঁওয়ে প্রতিবছর মাসব্যাপী এ মেলা বসে।  কেনাকাটা ও বিনোদনের কেন্দ্র হয়ে  উঠার পাশাপাশি  রপ্তানি বাজার  সম্প্রসারণের বিশাল ভূমিকা রাখে এই বাণিজ্যমেলা। গত বছর করোনার প্রকোপে  মেলা বন্ধ থাকলেও এ বছর অনুমতি দেয়া হয়েছে এই মেলার। দীর্ঘ দুই বছর পর আজ ২০২২ সালের আগমনের সাথে সাথে ১ জানুয়ারী  রোজ শনিবার  ঢাকায় শুরু হলো  ২৬ তম ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলা। তবে মেলা শুরু হলেও করা হয়েছে স্থান পরিবর্তন, এই মেলার  নতুন স্থান হিসাবে বেছে নেয়া হয়েছে পূর্বাচলে।

 

সংবাদ সম্মেলনে বাণিজ্যমন্ত্রী জানিয়েছেন ,উক্ত  বাণিজ্যমেলায় দেশি-বিদেশি বিভিন্ন  প্রতিষ্ঠানকে কয়েকটি  ক্যাটাগরির সর্বমোট মোট ২৩ টি প্যাভিলিয়ন, ২৭ টি মিনি-প্যাভিলিয়ন  ও ১৬২ টি স্টল সহ আরো  ১৫ টি ফুড স্টলকে অনুমোদন দেয়া  হয়েছে।

 

নতুন বছরের পুরো জানুয়ারী মাসব্যাপী সকাল ১০টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত খোলা থাকবে এই মেলা। তবে সাপ্তাহিক ছুটির দিনের জন্য সময় বর্ধিত করে  রাত ১০টা পর্যন্ত মেলা খোলা রাখার অনুমতি রয়েছে। এইবার মেলার প্রবেশ মূল্য করা হয়েছে ৪০ টাকা প্রাপ্তবয়স্কদের জন্য আর  শিশুদের জন্য ২০ টাকা।

আপনার মন্তব্যঃ

একই ধরনের সংবাদ

আপনার জন্য